Home খেলা মঈনের হ্যাটট্রিকে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

মঈনের হ্যাটট্রিকে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

4
0
SHARE

এই বছর বাংলাদেশের ফুটবলে ব্যস্ত শিডিউল। সেই ফেব্রুয়ারী থেকে লাল সবুজদের দেশে এবং বিদেশের মাঠে খেলা চলছে। ছোট খাটো সাফল্য ছাড়া ছিল না কোনো ট্রফি জয়ের স্বাদ। অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা এবং অনূর্ধ্ব-১৮ পুরুষ সাফে ফাইনালে হার। বিশ্বকাপ প্রাক বাছাইয়ে লাওসের বিপক্ষে জয়, বাছাই পর্বে ভারতের সাথে ড্র। অনূর্ধ্ব-১৬ এএফসি মহিলা ফুটবলে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ড্র এবং এএফসি কাপে ঢাকা আবাহনীর চূড়ান্ত পর্বে যাওয়া। এর বাইরে রোববারই এই বছরে প্রথম চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বাদ পেল বাংলাদেশ।

রোববার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে উয়েফার অর্থায়নে অনূর্ধ্ব-১৬ ডেভেলপমেন্ট ফুটবলে তাদের এই শিরোপা উৎসব মালদ্বীপকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে। আসরে মোট সাত গোল করা মঈনুল ইসলাম মঈনের হ্যাটট্রিকে এই সহজ ও বড় জয়। ম্যাচে তিনি করেন তিন গোল। আগের দুই ম্যাচে জয়ের স্বাদ নেয়া বাংলাদেশের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য এই ম্যাচে ড্র দরকার ছিল। সেখানে রবার্ট মার্টিন রাইলেসের দল সহজ জয় তুলে নিয়েছে। অন্য ম্যাচে ফারো আইল্যান্ড ২-০ গোলে কম্বোডিয়াকে হারিয়ে রানার্সআপ হয়েছে।

বাংলাদেশের বিপক্ষে মালদ্বীপ ৫৯ মিনিটে ১০ জরে পরিনত হয় মারামারি করার জন্য। তাদের ফরোয়ার্ড রাফি ফাজিল লালকার্ড পান। ৮২ মিনিটে তাদের কোচ মোহাম্মদ নিজামকেও লাল কার্ড দেখান কুয়েতের রেফারি। মালদ্বীপ গত ম্যাচে ২-২ গোলে ড্র করেছিল কম্বোডিয়ার বিপক্ষে।

মালদ্বীপ কোনো শক্ত প্রতিপক্ষ ছিল না। প্রথম ম্যাচে তাদের ১০-৩ গোলে হারিয়ে তা স্পষ্ট করে দিয়েছিল ফারো আইল্যান্ড। তাই কাল সাফ অঞ্চলের দেশটিকে পেয়ে শুরু থেকেই আক্রমনাত্মক বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৬ দল। লাল সবুজরা প্রথম ম্যাচে ২-০ গোলে কম্বোডিয়াকে এবং দ্বিতীয় ম্যাচে ৩-১ গোলে হারের স্বাদ দেয় ফারো আইল্যান্ডকে। জনি সিকদারের দল ম্যাচের ছয় মিনিট বয়সেই লিড নিয়ে নেয়। মঈনুল ইসলাম মঈনের ক্রসে ইমন ইসলাম বাবুর হেড চলে যায় জালে। ১৪ মিনিটই বাংলাদেশ দল ব্যবধান দ্বিগুন করে। সাজিদ হাসান জুম্মানের শট বিপক্ষ ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে দিক বদল করে গোল লাইন অতিক্রম করে।

২৩ মিনিটে স্কোর বোর্ডে বাংলাদেশের নামের পাশে তিন গোল। এবার কর্নার থেকে আসা বলে ডিফেন্ডার অপূর্ব মালির হে জালে আশ্রয় নেয়। মঈনের হ্যাটট্রিক মিশন শুরু ৩৭ মিনিট থেকে। তার নেয়া শটে পরাস্ত মালদ্বীপের কিপার। ৫৪ মিনিটে পেনাল্টি থেকে নিজের ম্যাচে দ্বিতীয় এবং দলের পঞ্চম গোল করেন মঈন।

৮২ মিনিটে হ্যাটট্রিক পূর্ন করেন বুদ্বিদীপ্ত শটে। সতীর্থের পাস থেকে বল পেয়ে মালদ্বীপের ডিফেন্ডারদের বোকা বানান মঈন। পেছনে ঘুরে এরপর আবার সামনে ঘুরে ডান পায়ে মাটি ঘেষাঁ শট নেন। তাতেই তার হ্যাটট্রিক পূরণ। গতবছর থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত এই আসরেও মালদ্বীপকে বড় ব্যবধানে হারিয়েছিল বাংলাদেশ।

ম্যাচে মালদ্বীপ কোনো চান্সই পায়নি। তারা তিন ম্যাচে ১৬ গোল খেয়ে আর এক পয়েন্ট নিয়ে বাড়ী ফিরলো। বাংলাদেশ তিন ম্যাচেই জিতেছে। তাদের দেয়া গোলের সংখ্যা ১১টি।