Home রাজনীতি জেলা উপজেলা কমিটিতে হাইব্রিডদের বিদায় জানিয়ে দু:সময়ের কর্মীদের মূল্যায়ন করা হবে :...

জেলা উপজেলা কমিটিতে হাইব্রিডদের বিদায় জানিয়ে দু:সময়ের কর্মীদের মূল্যায়ন করা হবে : লায়ন মো: মজিবুর রহমান হাওলাদার

22
0
SHARE

এখন আর কেউ বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে ও বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার আদর্শ নিয়ে, শহীদ শেখ রাসেলের স্মৃতি কে অম্লান রাখার জন্য শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ করে না। সবাই এখন ক্ষমতার ও টাকার শিশু কিশোর পরিষদ করে।
সুনামগঞ্জ জেলা. চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা, নারানগঞ্জ জেলা, বরিশাল জেলা, চুয়াডাঙ্গাজেলা ও গোপালগঞ্জ জেলার নেতাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমন ষ্ট্যাটাস দিয়েছে ।
শুধু ৬টি জেলাই নয়, এখন সমগ্রহ বাংলাদেশের সকল জেলা – উপজেলায় সংগঠন চলছে এমপি ছেলে , তাদের আত্নিয়স্বজন ও টাকা বিনিময় নেতা তৈয়ার করা ।
সংগঠনের সাধারন সম্পাদক লায়ন মোঃ মজিবুর রহমান হাওলাদার এক গনমাধ্যম কে বলেন, ২০০৯ হইতে ২০২০ইং পর্যন্ত আওয়ামীলীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকার কারনে অনেক জায়গায় বিশেষ বলয় সৃষ্টি হয়েছে। ইতিমধ্য শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশের পরিঁষদের প্রধান পৃষ্ঠপোষক সভানেত্রী শেখ হাসিনা এ বলয় ভেঙ্গে ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতা- কর্মিদের মূল্যায়নের নির্দেশ দিয়েছেন । আগামী অক্টোবর ২০২০ ইং মাস থেকে হাইব্রিডদের বিদায় জানিয়ে দুঃসময়ের কর্মীদের মূল্যায়ন করা হবে ।
দল টানা ক্ষমতায় থাকায় গত ১২ বছরে নিজ বলয় শক্তিশালী করতে স্থানীয় এমপি – মন্ত্রী ও জেলা – উপজেলার শীর্ষ নেতারা বি এন পি – জামাত থেকে লোকদের নিয়ে অথবা আত্মীয়স্বজনদের নিয়ে গড়ে তুলেছেন শক্তিশালী বলয় । তারা গড়ে তুলেছেন লুটে পুটে খাওয়া শক্তিশালী বাহিনী ।
শুধু তাই নয় , বার বছরে শত শত অনুপ্রবেশকারীকে দেওয়া হয়েছে শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদের পদ – পদবিও । কেউ কেউ উরে এসে জুড়ে বসেছেন শীর্ষ পদেও । এ সব হচ্ছে বিপুল টাকার বিনিময় । সর্বত ঐ সমস্ত হাইব্রিডদের দাপটে কোণঠাসা সংগঠনের ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতা কর্মীরা । কোথাও কোথাও সংগঠনের ত্যাগী নেতা কর্মিরা ব্যবসা থেকে বন্ব্জ্ঞিত । এমপি পরিবারের বিশেষ সদস্যরা নিয়ন্ত্রণ করছে ব্যবসা বানিজ্য, পদ- পদবি নির্ধারণ করাসহ সব কিছুই ।
হাইব্রিডদের দাপটে ১৯৯১ থেকে শুরু করে ২০০৮ সালের আগে যারা সংগঠনে সক্রিয় ছিলেন , ঝুঁকি নিয়েছেন তারা নিষ্ক্রিয় হতে শুরু করেছেন ।
বিষয়টি মাননীয় সভানেত্রী , প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরে আসায় এই বলয় ভাঙ্গার নির্দেশ দিয়েছেন ।
শেখ রাসেল জাতীয় শিশুকিশোর পরিষদ শাখা দেশের বাহিরে বিশেষ করে আমেরিকা, সৌদি আরব , ইউরোপীয় কান্ট্রিসহ অনেক দেশেই ক্ষমতার সময় অবৈধ ভাবে ও টাকার বিনিময় কমিট গঠন করা হয়েছে। ঐ সমস্ত কমিটি বিলুপ্ত করে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী নতুন কমিটি গঠন করা হবে। বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ পুত্রের সংগঠনকেও হাইব্রিড অনুপ্রবেশ করে সংগঠনের ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে ।
শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিঁষদ সমাজ সেবা অধিদপ্তরে নিবন্ধনের অনুমতির পরই ১৭ ই মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শতবর্ষ পালন উপলক্ষ্যে ব্যাপক কর্ম সূচী পালন করা হয় । আমরাই প্রথম বাংলাদেশে বনানী কবরস্থানের সামনে সচেতনামূলক কর্মসূচী হতদরিদ্রদের মাস্ক ও হ্যান্ড সেনেটাইজেশনের মাধ্যমে জনগনকে সচেতনামূলক কর্মসূচী পালন করেছি ।
পরবতিতে টুঙ্গীপাড়া বঙ্গবন্ধুর মাজার জিয়ারত করার কথা থাকলেও মহামারী করোনা ভাইরাসের কারনে কোন কর্মসূচী পালন করা সম্ভব হয়নি । সকল কর্মসূচী বন্ধ ঘোষনা করা হয় । মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ মোতাবেক সকল জেলা – উপজেলাকে আওয়ামীলীগ নেতাদের সাথে কাজ করার কেন্দ্রীয় ভাবে নির্দেশ দেওয়া হয় ।
আগামী ১৮ অক্টোবর ২০২০ শেখ রাসেলের জন্মদিনের অনুষ্ঠান প্রস্ততি নেওয়ার জন্য ঈদ উল আযাহার পর পরই কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারন মিটিং এর আহব্বায়ন করা হবে এবং সমগ্রহ বাংলাদেশের সকল জেলা – সকল উপজেলা নতুন কমিট গঠন করা হবে । হাইব্রিডদের বিদায় দিয়ে ত্যাগী ও দু:সময়ের নেতা কর্মিদের নিয়ে নতুন কমিটি দেশে এবং বিদেশে গঠন করা হবে। জয় বাংলা ! জয় বঙ্গবন্ধু !!

লায়ন মো: মজিবুর রহমান হাওলাদার
সাধারন সম্পাদক
শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ