Home আন্তর্জাতিক খাসোগি হত্যায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেদন নেতিবাচক ও মিথ্যা: সৌদি

খাসোগি হত্যায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেদন নেতিবাচক ও মিথ্যা: সৌদি

8
0
SHARE

সাংবাদিক জামাল খাসোগির হত্যার সঙ্গে সৌদি আরবের ক্রাউন্স প্রিন্স মুহাম্মদ বিন সালমান জড়িত নেই বলে দাবি করেছে সৌদি আরব। সালমানকে জড়িয়ে যুক্তরাষ্ট্র যে গোয়েন্দা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে তাকে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে ‘নেতিবাচক, মিথ্যা এবং অগ্রহণযোগ্য’ বলা হয়েছে।

শুক্রবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) প্রতিবেদন প্রকাশের পর সৌদি আরব বিবৃতিতে এভাবে প্রতিবাদ করে, ‘সৌদি আরব এই নেতিবাচক, মিথ্যা এবং অগ্রহণযোগ্য মূল্যায়ন প্রত্যাখ্যান করছে।’

কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইন্টেলিজেন্সের পরিচালকের দপ্তরের এই প্রতিবেদন বলছে, ‘সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মুহাম্মদ বিন সালমান সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে হত্যা বা আটক করতে তুরস্কের ইস্তাম্বুলে অভিযানের অনুমোদন দিয়েছিলেন বলে আমাদের কাছে প্রতীয়মান হয়েছে।’

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সৌদি ক্রাউনের প্রিন্সই এই হত্যাকাণ্ডের নির্দেশদাতা বলে ২০১৮ সালেও সিআইএ সন্দেহ করেছিল। তবে এর আগে কখনও বিষয়টি প্রকাশ করেনি যুক্তরাষ্ট্র।

সৌদি আরবের দাবি, ‘এই অপরাধ ভিন্ন একটি গ্রুপ করেছে, যারা সব প্রাসঙ্গিক বিধি লঙ্ঘন করেছে।’

‘জড়িত সবাইকে অভিযুক্ত করে সাজা দিয়েছে আদালত। এই সাজা খাসোগির পরিবারও স্বাগত জানিয়েছে।’

গত বৃহস্পতিবার ক্রাউন প্রিন্সের বাবা বাদশা সালমানের সঙ্গে টেলিফোন আলাপে জো বাইডেন ‘সর্বজনীন মানবাধিকার এবং আইনের শাসনের গুরুত্বের বিষয়ে’ যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান ব্যক্ত করেন বলে হোয়াইট হাউজ জানিয়েছে।

তখনই ধারণা করা হয় তিনি খাসোগি হত্যার বিষয়টি ট্রাম্পের মতো চেপে যাবেন না।

ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটের ভেতরে ২০১৮ সালে খাসোগিকে হত্যা করে টুকরো টুকরো করা হয়। তিনি দ্য ওয়াশিংটন পোস্টের জন্য বিভিন্ন প্রবন্ধ লিখতেন। তাতে প্রায়ই সালমানের সমালোচনা করতেন।