Home অর্থ-বাণিজ্য শেয়ারবাজারে বড় দরপতন

শেয়ারবাজারে বড় দরপতন

11
0
SHARE

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে। এতে মূল্যসূচকের বড় পতন হয়েছে। সেই সঙ্গে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ।

এদিন ডিএসইতে লেনদেন শুরু হয় বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ার মাধ্যমে। ফলে লেনদেনের প্রথম চার মিনিটেই ডিএসইর প্রধান সূচক ৩১ পয়েন্ট বেড়ে যায়। কিন্তু শুরুর এই বড় উত্থান প্রবণতা বেশি সময় স্থায়ী হয়নি।

প্রথম আধাঘণ্টার লেনদেন শেষ হতেই লেনদেনে অংশ নেওয়া একের পর এক প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমতে থাকে। এতে দেখতে দেখতেই ঋণাত্মক হয়ে পড়ে মূল্যসূচক। লেনদেনের শেষ দিকে এসে পতনের মাত্রা আরও বেড়ে যায়। ফলে বড় দরপতন দিয়ে শেষ হয় দিনের লেনদেন।

দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৬৫ পয়েন্ট কমে ৬ হাজার ৯৩০ পয়েন্টে নেমে গেছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ ১২ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৪৬৪ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক ২৪ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ৬৫৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

ডিএসইতে দিনভর লেনদেনে অংশ নেওয়া ৬৮ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ২৭৩টির। আর ৩২টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ১১১ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ১ হাজার ৫০৬ কোটি ২৩ লাখ টাকা। সেই হিসাবে লেনদেন কমেছে ৩৯৪ কোটি ৮৮ লাখ টাকা।

টাকার অংকে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। কোম্পানিটির ১৫৪ কোটি ৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্র্যাক ব্যাংকের ৬৫ কোটি ৪৬ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ৪৭ কোটি ২৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ওরিয়ন ফার্মা।

এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনে শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- আইএফআইসি ব্যাংক, জিনেক্স ইনফোসিস, সাইফ পাওয়ারটেক, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো, এনআরবিসি ব্যাংক, লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ ও ডেল্টা লাইফ ইন্সুরেন্স।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই কমেছে ২১৯ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৩১ কোটি ৫২ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেওয়া ২৭০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৫৮টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৯৯টির ও ১৩টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।