Home খেলা বিদায়ী টেস্টে সুযোগ পেলেন ওয়ার্নার, সমালোচনায় জনসন

বিদায়ী টেস্টে সুযোগ পেলেন ওয়ার্নার, সমালোচনায় জনসন

11
0
SHARE

বিদায়ী সিরিজ খেলতে চেয়েছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। তার দাবি মেনে নিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। প্রথম টেস্টের দলে রাখা হয়েছে ওয়ার্নারকে। তার পরেই তাকে নিশানা করেছেন মিচেল জনসন। এক সময় অস্ট্রেলিয়া দলে ওয়ার্নারের সতীর্থ ছিলেন তিনি। ওয়ার্নারের পাশাপাশি অস্ট্রেলিয়ার নির্বাচক প্রধান জর্জ বেইলিকেও কটাক্ষ করেছেন তিনি। টেনে এনেছেন ২০১৮ সালে স্যান্ডপেপার ঘটনা।
ওয়ার্নারের ফর্মের উদাহরণ দিয়েছেন জনসন। তিনি বলেন, ‘‘শেষ ৩৬ টেস্ট ইনিংসে ২৬ গড়ে ব্যাট করেছে ওয়ার্নার। এক জন ওপেনার যদি এত খারাপ ফর্মে থাকে তা হলে কেন তাকে খেলানো হবে। শুধুমাত্র বিদায়ী সিরিজ় বলে। এর কোনও মানে হয় না। বেইলির সেটা বোঝা উচিত ছিল। ব্যক্তিগত সম্পর্ক নয়, ফর্ম দেখে দল গড়া উচিত ছিল।’’
২০১৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট চলাকালীন বল বিকৃতির অভিযোগ উঠেছিল অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে। তার নেপথ্যে প্রধান মাথা ছিলেন ওয়ার্নার। স্যান্ডপেপার দিয়ে বলের আকার নষ্ট করার চেষ্টা করেছিল অস্ট্রেলিয়া। সেই ঘটনাও টেনে এনেছেন জনসন। তিনি বলেন, ‘‘গত পাঁচ বছরে ওয়ার্নার শুধুমাত্র বল বিকৃত করেছে। অস্ট্রেলিয়ার সম্মানহানি করেছে। আর সেই ক্রিকেটারকেই কিনা সম্মান দেওয়া হচ্ছে। এটা হাস্যকর।’’
৩ ডিসেম্বর থেকে শুরু টেস্ট সিরিজ়। প্রথম টেস্ট হবে পার্থে। পরের দু’টি টেস্ট যথাক্রমে মেলবোর্ন ও সিডনিতে। ওয়ার্নার দলে থাকবেন কি না তা নিয়ে সংশয় ছিল। তবে বিশ্বকাপে ভাল খেলায় সুযোগ পেয়েছেন তিনি। অবশ্য প্রথম টেস্টের দলে ওয়ার্নার থাকলেও পরের দু’টি টেস্টে তিনি সুযোগ পাবেন কি না তা নিশ্চিত নয়। পুরো সিরিজ়ে না খেললে অবশ্য ঘরের মাঠে অবসর নিতে পারবেন না তিনি।
প্যাট কামিন্সের নেতৃত্বে ১৪ সদস্যের দল ঘোষণা করেছেন বেইলি। জোরে বোলার ল্যান্স মরিসকে দলে নেওয়া হয়েছে। বোঝা যাচ্ছে, পরের প্রজন্মের পেসারদের তৈরি করতে চাইছে অস্ট্রেলিয়া। ঘরের মাঠেই শুরুটা করেছে তারা। অ্যাশেজ়ে চোট পাওয়ার পর থেকে দলের বাইরে ছিলেন স্পিনার নেথান লায়ন। তিনিও ফিরেছেন দলে।
প্রথম টেস্টে অস্ট্রেলিয়া দল: প্যাট কামিন্স (অধিনায়ক), স্কট বোলান্ড, অ্যালেক্স ক্যারি, ক্যামেরন গ্রিন, জশ হেজ়লউড, ট্রাভিস হেড, উসমান খোয়াজা, মার্নাশ লাবুশেন, নেথান লায়ন, মিচেল মার্শ, ল্যান্স মরিস, স্টিভ স্মিথ, মিচেল স্টার্ক ও ডেভিড ওয়ার্নার।